Home » মেহেরপুরে পেঁয়াজের বাম্পার ফলন দাম না থাকায় কৃষকের কপালে চিন্তার ভাঁজ

মেহেরপুরে পেঁয়াজের বাম্পার ফলন দাম না থাকায় কৃষকের কপালে চিন্তার ভাঁজ

কর্তৃক Md. Sohel Rana
524 ভিউস
  • মেহেরপুরে পেঁয়াজের বাম্পার ফলন
  • দাম না থাকায় কৃষকের কপালে চিন্তার ভাঁজ 

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ মেহেরপুর জেলায় নতুন পেঁয়াজের বাম্পার ফলন, দাম না থাকায় কৃষকের কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে। মেহেরপুর সদর উপজেলা রঘুনাথপুর গ্রামে কৃষক মিলন আলী বলেন- তার দুই বিঘা মুড়ি কাটা পেঁয়াজ আছে তার পেঁয়াজ প্রতি বিঘা ৯০/১০০ মন পেঁয়াজ হবে, প্রতি কেজি পেঁয়াজের খরচ হয়েছে ১৮/২১ টাকা, কিন্তু পিয়াজ তোলার আগেয় বাজারে এখন ১৪ থেকে ১৬টাকা কেজি বিক্রয় হচ্ছে।

পেঁয়াজের যত্নে কৃষকেরা

পেঁয়াজ চাষি জাহিদ বলেন- লালতীর পেঁয়াজ বাম্পার ফলন ৯০থেকে ১০০মন হচ্ছে, প্রতি কাঠায় ৫মন করে হচ্ছে পেঁয়াজ, মেহেরপুরের চাহিদা মিটায়ে বাংলাদেশের সব জেলায় দেয়া সম্ভব। মেহেরপুরের কৃষকদের সরকারের কাছে দাবি ভারতের পেঁয়াজ না ঢুকলে কৃষকরা কিছুটা হলেও ক্ষতিপুষে উঠবে বলে জানান। মেহেরপুর আমঝুপি বিএডিসি ডাল ও তৈল বীজ খামারে উপ-পরিচালক কৃষিবিদ সঞ্জয় কুমার দেবনাথ সাংবাদিকদের বলেন- মেহেরপুরে কয়েক বছর ধরে গ্রীষ্মকালীন পেঁয়াজ উৎপাদন করছে কৃষকরা ভালো ফলন পাচ্ছে, মেহেরপুরে মাটি গ্রীষ্মকালীন পেঁয়াজের জন্য খুবই উপযোগী এই মাটিতে ৪টি ফসল ফলানো যায়, এই বছরে আবহাওয়া (ওয়েদার)টা খুবই ভালো।

পেঁয়াজ তোলার সময়

মেহেরপুর বারাদি বিএডিসি খামারের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মনিরুজ্জামান কৃষকদের উদ্দেশ্যে বলেন- এই বছরে মেহেরপুরে পেঁয়াজের বাম্পার ফলন পেয়েছে, বাজার দর ভালো থাকলে লাভের মুখ দেখবে কৃষকরা। মেহেরপুর আমঝুপি বিএডিসি ডাল ও তৈল বীজ প্রক্রিয়াজাত করণ উপ-পরিচালক জিয়াউর রহমান বলেন- এক সময় এই অঞ্চলে পেঁয়াজের ঘাটতি ছিল কিন্তু বর্তমানে কৃষি বিজ্ঞানীদের প্রচেষ্টার ফলে গ্রীষ্মকালীন পেঁয়াজ ও অল্প সময়ে বেশি ফলন হয় এবং ওয়েদারের সাথে মিল রেখে মেহেরপুর জেলার কৃষকদের হাতে পেঁয়াজের বীজ সরবরাহ করেছে বাংলাদেশ বিএডিসিও কৃষি নিয়ে কাজ করা বেসরকারি এনজিও, সমমনা কিছু সংস্থা, এতে করে এই অঞ্চলের কৃষকরা ভালো বীজ পাওয়ার কারণে ভালো ফলন  হয়েছে।

শ্রমিকেরা পেঁয়াজ তুলছে

আমঝুপি বিএডিসির সবজি বীজ খামারের উপ-পরিচালক গোলক নাথ বনিক বলেন- মেহেরপুর সদর উপজেলা  গ্রীষ্মকালীন পেঁয়াজের জাত হল কয়েকটি তার মধ্যে মুড়িকাট, লালতীর, সুখ সাগর, এই তিনটি জাত পেয়াজ এই অঞ্চলের সবচেয়ে ভালো ফলন পাওয়া যায়, তিনি বলেন সব সময় কৃষকদের কৃষি অফিস থেকে পরামর্শ ও সব রকম সহযোগিতা দিয়ে আসছে কৃষকদের। ওয়েব ফাউন্ডেশন প্রোগ্রাম অফিসার কৃষিবিদ ফেরদাউস হোছাইন বলেন- মেহেরপুর জেলায় ওয়েব ফাউন্ডেশন   গ্রীষ্মকালীন বারি-৫ (পাঁচ) পিয়াজের বীজ  উৎপাদনের জন্য কৃষকদের মাঝে বীজ  সরবরাহ করেছে, মেহেরপুর সদর উপজেলা আমঝুপি ইউনিয়ন, বুড়িপোতা ইউনিয়ন, মুজিবনগর উপজেলায় বাগোয়ান ইউনিয়নে, তিনি বলেন- ওয়েব ফাউন্ডেশন একটা উদ্যোগ নিয়েছে মেহেরপুর জেলায় কৃষকরা পেঁয়াজ উৎপাদন করে নিজ জেলার চাহিদা মিটিয়ে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় পাঠাচ্ছে গ্রীষ্মকালীন পেঁয়াজ। ওয়েব ফাউন্ডেশন এর কর্মকর্তারা  কৃষকদের সার্বিক সহযোগিতা করছে।

মেহেরপুর কাথুলী রোড walton শোরুমে, ওয়ালটনের সকল পণ্য সুলভ মূল্যে বিক্রয় করা হয়। ওয়ালটন ফ্রিজ, ফ্যান, রাইস কুকার, প্রেসার কুকার, সহ অনেক পণ্য পাওয়া যাচ্ছে। যোগাযোগের ঠিকানা, মেহেরপুর কাথুলি রোড, মোবাইল নাম্বার ০১৪০৩২৫৭৭৭০- ০১৩০৫৪২৪৬২০

০ মন্তব্য
0

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন