Home » মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা ইউপি সদস্য হত্যা মামলায় পিতা, পুত্রের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ।

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা ইউপি সদস্য হত্যা মামলায় পিতা, পুত্রের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ।

কর্তৃক m4BfLuMO2yLhlamiz
401 ভিউস

নিজস্ব সংবাদদাতা
২৩/০৩/২৩

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা ইউপি সদস্য হত্যা মামলায় পিতা, পুত্রের যাবজ্জীবন সশ্রম করাদন্ড, ২০ হাজার টাক জরিমানা, অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ড আদেশ প্রদান করেন আদালত। আজ জনকীর্ণ আদালতে দুপুরের দিকে মেহেরপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ও বিচারক রিপতি কুমার বিশ্বাস এ রায় প্রদান করেন । সাজা প্রাপ্ত আলমগীর হোসেন ও পিতা আব্দুল মালেক
গাংনী উপজেলার ষোলটাকা গ্রামের । মামলার বিবরণে জানা যায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের ২০১৭ সালের ২৫ মে আলমগীর হোসেনের নির্দেশে তার লোকজন ষোলটাকা গ্রামের কফিল উদ্দিনের বাড়িতে জোরপূর্বক প্রবেশ করে আব্দুল মালেকের হুকুমে রাফাতুল ইসলামকে রামদা দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। এ ঘটনা শুনে সাবেক ইউপি সদস্য রাফাতুল ইসলামের ভাতিজা কামাল হোসেন সকাল ১০টার সময় জোড় পুকুরিয়া থেকে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফিরছিলেন। কামাল হোসেন আব্দুল মালেকের বাড়ির সামনে এসে পৌঁছালে ওত পেতে থাকা আব্দুল মালেকের নির্দেশে কামাল হোসেনকে কুপিয়ে জখম করা হয, স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন। নিহত কামালের ভাতিজা ফারুক হোসেন বাদী হয়ে দঃবিঃ ৩০২/৩৪ ধারায় আলমগীর হোসেন, আব্দুল মালেক,সবতুল্যাহ বিশ্বাস, রাফাতুল্যাহ বিশ্বাস,আব্দুল গনি, মাজেদুল হক, মাজহারুল ইসলাম, রাজু বিশ্বাস, শহিদুল ইসলাম ও তমিরকে আসামি করে গাংনী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং ২৫৩/১৭। জি আর কেস নং ১৬৯/২০১৭। এ মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা প্রাথমিক তদন্ত শেষ করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। মোট ১২ জন সাক্ষী তাদের সাক্ষ প্রদান করেন। আসামিদের মধ্যে আলমগীর হোসেন এবং আব্দুল মালেক দোষী সাব্যস্ত হলে আদালত তাদেরকে যাবজ্জীবন সশ্রম করাদন্ড করেন , ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরো ৬ মাসের কারাদন্ডাদেশ প্রদান করেন। সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা সম্পর্কে পিতা ও পুত্র । এ মামলার খালাস প্রাপ্ত আসামি হলেন সবতুল্যাহ বিশ্বাস, রাফাতুল্যাহ বিশ্বাস,আব্দুল গনি, মাজেদুল হক, মাজহারুল ইসলাম, রাজু বিশ্বাস, শহিদুল ইসলাম ও তমির এর আনীত অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় আদালত তাদেরকে বেকসুর খালাস প্রদান করেন । মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে অতিরিক্ত পিপি কাজী শহীদ এবং আসামি পক্ষে এ কে এম শফিকুল আলম কৌশলী হিসাবে কেস পরিচালনা করেন । রাষ্ট্রপক্ষে অতিরিক্ত পিপি সন্তোষ প্রকাশ করেন। আসামি পক্ষের কৌশলী উচ্চ আদালতে আপিল করবেন বলে জানান ।

মেহেরপুর কাথুলী রোড walton শোরুমে, ওয়ালটনের সকল পণ্য সুলভ মূল্যে বিক্রয় করা হয়। ওয়ালটন ফ্রিজ, ফ্যান, রাইস কুকার, প্রেসার কুকার, সহ অনেক পণ্য পাওয়া যাচ্ছে। যোগাযোগের ঠিকানা, মেহেরপুর কাথুলি রোড, মোবাইল নাম্বার ০১৪০৩২৫৭৭৭০- ০১৩০৫৪২৪৬২০

০ মন্তব্য
0

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন