Home » বহু প্রতিষ্ঠানই আমাদের আশ্বাস দেয় কিন্তু কাজের বেলায় কাঁচকলা!

বহু প্রতিষ্ঠানই আমাদের আশ্বাস দেয় কিন্তু কাজের বেলায় কাঁচকলা!

কর্তৃক Md. Sohel Rana
972 ভিউস
  • মেহেরপুরে বাংলার ঐতিহ্য বাঁশ ও বেতশিল্প বিলুপ্তির পথে
  • বহু প্রতিষ্ঠানই আমাদের আশ্বাস দেয় কিন্তু কাজের বেলায় কাঁচকলা- বাঁশ ও বেতশিল্পের কারিগর

বিশেষ প্রতিনিধি; আসাদুজ্জামান খাঁনঃ বাঁশশিল্প মূলত একটি লোকশিল্প এর প্রধান কাঁচামাল হলো বাঁশ। বাংলাদেশে এই তৃণগোত্রের প্রায় ২৬ধরণের বাঁশ পাওয়া যায়। সাধারণত গ্রামের মানুষেরা এই শিল্পের সঙ্গে জড়িত থাকে। বাঁশের ব্যবহার প্রায়ই সর্বজনীন যেমন- মাচান, ঘর, মই, ঝুড়ি, ফাঁদ, বিভিন্ন হস্তশিল্প ছাড়াও দাফনের কাজে, মৃতদেহ সৎকারের কাজে বাঁশের ব্যবহার হয়।

বাঁশশিল্প বাঙালি সংস্কৃতির একটি বড় অংশ। বাঁশ দিয়ে ঘরের ব্যবহৃত বিভিন্ন জিনিসপত্র তৈরি করা হয়। এসব জিনিসপত্রের কদরও আছে বেশ ভালো। অপ্রতুলতা ও পৃষ্ঠপোষকতা ও সু-পরিকল্পিত উদ্যোগের অভাবে প্রায় বিলুপ্ত হতে চলেছে মেহেরপুরে বাংলার ঐতিহ্য বাঁশ ও বেতশিল্প।

  • মেহেরপুরে বাংলার ঐতিহ্য বাঁশশিল্প বিলুপ্তির পথে
  • অপসাংস্কৃতির আধুনিকতার ছোঁয়ায় হারিয়ে যাচ্ছে বাংলার ঐতিহ্য বাঁশশিল্প
  • লোকশিল্প ও হস্তশিল্প, বাঁশ ও বেতশিল্প, কুঠিরশিল্প

বর্তমান বাজারে প্লাস্টিক পণ্য সামগ্রী সর্বজনীন ব্যবহারের ফলে তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে টিকে থাকতে না পেরে, মুখ থুবড়ে পড়ছে বা পড়েছে এককালের ঐতিহ্যবাহী বাংলার এই বাঁশ ও বেতশিল্প। অপরদিকে উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য মূল্য না পেয়ে অভাব-অনটণের মধ্যে দিন যাপন করছেন বাঁশ শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট সু-দক্ষ কারিগরসহ তাদের পরিবার। পরিবার-পরিজন নিয়ে বেঁচে থাকতে মানবেতর দিন কাটছে তাঁদের। শ্রী মাধব চন্দ্র দাস (৫৫), শ্রী বাবুল চন্দ্র দাস (৫২), শ্রী কুমার দাস (৫০), শ্রী লক্ষ্মণ চন্দ্র দাস (৫০) তাঁদের সাথে কথা বলে তারা জানায়, ১টি বাঁশে ১২-১৩ টি ডালা তৈরি হয়, যা বিক্রয় করে খরচ বাদে ১৫-২০ টাকা লাভ হয়। আর্থিক সহয়তার বিষয়ে তাদের কাছে জানতে চাওয়া হলে বলে, অনেক প্রতিষ্ঠানই আমাদের আশ্বাস দেয় কিন্তু কাজের বেলায় কাঁচকলা!

অপরদিকে- মেহেরপুর বিসিক সম্প্রসারণের কর্মকর্তা, ফয়সাল হাসনাত বলেন, বিসিক বাঁশ শিল্পের সঙ্গে জড়িতদের পরামর্শ ও প্রশিক্ষণসহ আর্থিক সহায়তা দিয়ে থাকে। প্রকৃতপক্ষে বাঁশ বা বেতের সামগ্রী যারা তৈরি করছে, তাদের সরকার ও বিভিন্ন এনজিও’র সহায়তা করা অত্যান্ত জরুরী। বাংলার ঐতিহ্য বাঁশ ও বেতের সামগ্রীকে টিকিয়ে রাখতে হলে, এই শিল্পের পেছনের মানুষগুলোকে আর্থিক সহযোগিতার মাধ্যমে তাদের পেশাকে বাঁচাতে হবে। প্রয়োজন বোধে এদের জন্য বিনা সুদে, ব্যাংক ঋণের ব্যবস্থা করতে হবে। অন্যথায় বাঁশশিল্প বা হস্তশিল্প একদিন বিলুপ্ত হয়ে যাবে। এই শিল্পকে বাঁচাতে আমাদের যার যার স্থান থেকে সকলকে এগিয়ে আসা উচিৎ। তা না হলে একদিন আমাদের এই সমাজের কৃষ্টি ও সংস্কৃতিকে ভুলে কুঠির বা বাঁশশিল্পটাকে হারিয়ে অন্য ভিনদেশিদের কৃষ্টির উপর নির্ভর হয়ে চলতে হবে।
-৩০/০৯/২৩

মেহেরপুর কাথুলী রোড walton শোরুমে, ওয়ালটনের সকল পণ্য সুলভ মূল্যে বিক্রয় করা হয়। ওয়ালটন ফ্রিজ, ফ্যান, রাইস কুকার, প্রেসার কুকার, সহ অনেক পণ্য পাওয়া যাচ্ছে। যোগাযোগের ঠিকানা, মেহেরপুর কাথুলি রোড, মোবাইল নাম্বার ০১৪০৩২৫৭৭৭০- ০১৩০৫৪২৪৬২০

০ মন্তব্য
0

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন