Home » জাতীয় দিবস পালন করছে সৌদি আরব

জাতীয় দিবস পালন করছে সৌদি আরব

কর্তৃক m4BfLuMO2yLhlamiz
514 ভিউস

প্রতিবারের মতো এবারও সৌদি আরব অত্যন্ত আনন্দঘন পরিবেশে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে জাতীয় দিবস উদযাপন করছে। ১৯০২ সালের ১৫ জানুয়ারি সৌদি আরবের প্রতিষ্ঠাতা বাদশাহ আবদুল আজিজ আবদুর রহমান আল সৌদ এক রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে তার পৈত্রিক শহর রিয়াদ দখল করেন।

দীর্ঘ প্রায় ৩০ বছর সংগ্রামের পর ১৯৩২ সালের ২১ মে এক রাজকীয় ফরমানের মাধ্যমে আরবের বিভিন্ন অংশ একত্রিকরণের ঘোষণা দেয়া হয়। পরবর্তীতে একই বছরের ২৩ সেপ্টেম্বর গঠিত হয় আধুনিক সৌদি আরব। সেই থেকে দিনটিকে সৌদি আরবের জাতীয় দিবস হিসেবে গণ্য করা হয়।

সৌদি আরবের জাতীয় দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে সৌদি সরকার ও সে দেশের জনগণকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. জাভেদ পাটোয়ারী।

এ উপলক্ষে সৌদিআরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. জাভেদ পাটোয়ারী বলেন, বর্তমান সরকারের সময় সৌদি আরব এবং বাংলাদেশ সরকারের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক উল্লেখ্যযোগ্য সফর অনুষ্ঠিত হয়েছে, যা দুদেশের মধ্যে বিদ্যমান অত্যন্ত চমৎকার কূটনৈতিক সম্পর্কেরই উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারণে দুদেশের বর্তমান সরকারের আমলে দ্বিপাক্ষিক অর্থনৈতিক সম্পর্কও দিন দিন সুদৃঢ় হচ্ছে। বর্তমান সরকারের গতিশীল, সক্রিয় ও কার্যকর কূটনৈতিক পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে ২০০৮ সাল থেকে সৌদি আরবে বন্ধ হয়ে যাওয়া শ্রমবাজার বর্তমানে শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সৌদি সরকার কর্তৃক বাংলাদেশি শ্রমিকদের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা এবং এর আওতায় বাংলাদেশি শ্রমিকদের ইকামা ট্রান্সফার, পেশা পরিবর্তন, অবৈধ বাংলাদেশি শ্রমিকদের চাকরির অবস্থা সংশোধন ও অবৈধভাবে কর্মরত বাংলাদেশি কর্মীদের কোন রকম জেল-জরিমানা ছাড়া সসম্মানে দেশে ফিরে যাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ দান, দুদেশের মধ্যে বিরাজমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হয়েছে, যা এ সরকারের কূটনৈতিক সফলতার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক হয়ে থাকবে।

বাংলাদেশ সরকারের প্রচেষ্টায় সৌদি সরকার ২০১৩ সালের ১০ মে থেকে ৩ জুলাই পর্যন্ত সৌদি আরবে বসবাসরত বাংলাদেশিদের ইকামা ট্রান্সফার ও পেশা পরিবর্তনের সুযোগ উম্মুক্ত করে দেয়। পরবর্তীতে বাংলাদেশ সরকারের একান্ত অনুরোধে সৌদি বাদশাহ আব্দুল্লাহ বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদের রাজকীয় আদেশে ৩ নভেম্বর পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়।

এর ফলে বিগত সরকারের সময় সৌদি আরব থেকে বাৎসরিক রেমিট্যান্স ১.৭৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার থেকে দ্বিগুণ বৃদ্ধি পেয়ে বর্তমানে সেটা দাঁড়িয়েছে ৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে।

এদিকে এবারের জাতীয় দিবসে ভিন্নমাত্রা যোগ করেছে সবুজ পণ্য সামগ্রীর সমারোহ। বিভিন্ন মক্তব (লাইব্রেরি) খেলনা ও বইয়ের পাশাপাশি বাচ্চাদের পছন্দসই সবুজ রংয়ের পতাকা, ব্যানার, ফেস্টুন, ক্যাপ, টিশার্ট, ব্যাজ, কাপ-প্লেট, ব্রেসলেট, বড় আকারের চশমা এবং বেলুনসহ বিভিন্ন আইটেম বিক্রি করছে।

পাঁচ রিয়াল থেকে ৫০০ রিয়ালের মধ্যে এসব আইটেমের ক্রেতা শিশু ও তরুণরা। দোকানগুলো এসব শিশু ও তরুণদের পছন্দসই রং ও সরবরাহ করছে। যার ফলে জাতীয় দিবসের আনন্দ ঈদের আনন্দে পরিণত হচ্ছে। সেই সঙ্গে নেট জগতে মামা হিসেবে পরিচিত ‘গুগল’ও সেজেছে সৌদি আরবের নিজস্ব সাজে। সড়ক-মহাসড়কে এবং সেখানে স্থাপিত ল্যাম্পপোস্টে আলোকসজ্জা করা হয়েছে।

সৌদি আরবের ছোট-বড় প্রতিটি নগরীতে আলাদা আলাদাভাবে জাতীয় দিবস পালনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সে অনুযায়ী জেদ্দা সমুদ্র সৈকতে উৎসবের নানা আয়োজন করা হয়েছে।

রিয়াদের মিউনিসিপল করপোরেশন একাধিক স্পটে জাতীয় দিবস উদযাপনের জন্য অনুষ্ঠান আয়োজনের উদ্যোগ নিয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে ব্যক্তিগত পর্যায়ে বিজয় দিবস উদযাপনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। দাম্মাম এবং আল খোবার নগরীর সমুদ্র সৈকতে আতশবাজি পোড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

মেহেরপুর কাথুলী রোড walton শোরুমে, ওয়ালটনের সকল পণ্য সুলভ মূল্যে বিক্রয় করা হয়। ওয়ালটন ফ্রিজ, ফ্যান, রাইস কুকার, প্রেসার কুকার, সহ অনেক পণ্য পাওয়া যাচ্ছে। যোগাযোগের ঠিকানা, মেহেরপুর কাথুলি রোড, মোবাইল নাম্বার ০১৪০৩২৫৭৭৭০- ০১৩০৫৪২৪৬২০

০ মন্তব্য
0

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন